রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৫:৪৩ পূর্বাহ্ন

ঘোষনা :
বর্তমান সময়ের জন্য  সকল জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহী প্রার্থীগণ জীবন বৃত্তান্ত, পাসপোর্ট সাইজের ১কপি ছবি ও শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্রসহ ই-মেইল পাঠাতে পারেন। মোবাইল: ০১৭৯৩-৫০১৮৫০ ও ০১৯৬৬-৭৮৭৭০৩  ই-মেইল: newsdailybartomansomoy@gmail.com

নওগাঁয় খেজুর রস সংগ্রহে ব‍্যস্ত সময় কাটছে গাছীদের

পত্নীতলা সংবাদদাতাঃ নওগাঁর পত্নীতলায় হিমেল হাওয়া আর অল্প-স্বল্প ঠান্ডা জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা। বর্তমানে বেশ ব্যস্ত সময় কাটছে গাছীদের। এই  রস সংগ্রহ ও গুড় তৈরির মৌসুম চলবে মাঘ মাস পর্যন্ত। অনেকে আবার গুড় তৈরি না করে টাটকা রস ফেরি করে পাড়া-মহল্লায় বিক্রি করেন।

উপজেলার হরিপুর গ্রামের মো. আব্দুল গফুর মিয়া বলেন, আমাদের প্রায় ৪০-৫০ টি খেজুর গাছ ছিল। এখন কমতে কমতে ১০-১২ টিতে ঠেকেছে। ছোটবেলায় প্রচন্ড ঠান্ডায় কাঁপতে কাঁপতে মজা করে রস-মুড়ি খেতাম।

এখন সে কথা নাতি-নাতনিদের কাছে বললে বিশ্বাসই করতে চায় না। উল্লেখ্য, গফুর মিয়ার মতো আরও অনেকেই বলেন, পত্নীতলায় ধীরে-ধীরে খেজুর গাছ কমে আসছে। 

কিছুদিন আগেও অধিকাংশ বাড়িতে, খেতের আইলে, রাস্তার দু-পাশে এবং ঝোপ-ঝাড়ের পাশে প্রাকৃতিক ভাবেই বেড়ে উঠতো অসংখ্য খেজুর গাছ এবং তা কোন পরিচর্যা ছাড়াই। প্রতিটি পরিবারের চাহিদা পূরণের পর অতিরিক্ত রস দিয়ে গুড় তৈরি হতো। 

সুদূর ফরিদপুর জেলা থেকে গাছিরা এখানে এসে আস্তানা গেড়ে রস সংগ্রহ ও গুড় তৈরি করতো। সাধারণ মানুষের সচেতনতার অভাবে পরিবেশ বান্ধব খেজুর গাছ এখন আর তেমন চোখেই পড়ে না।

বাংলাদেশের প্রতিটি অঞ্চলেই আজ খেজুর গাছ বিলুপ্তির পথে। গাছিদের খেজুর গাছ কাটার কাজটি ছিল শিল্প আর দক্ষতায় ভরা। তারা ডালকেটে গাছের সাদা বুক বের করে বাঁশের তৈরি নালি বসিয়ে রস রস সংগ্রহ করতো। 

এর মধ্যে রয়েছে চরম ধৈর্য্য আর দিনের পর দিন অপেক্ষার পালা। এ জন্য মৌসুমে দক্ষ আর কৌশলী গাছিদের কদর বাড়ে বহুগুণে।

পত্নীতলা উপজেলা সদর নজিপুর বাসস্ট্যান্ডের আনোয়ারা চিকিৎসালয়ের ডা. এম.এ গফুর, এমপিএইচ-ইন নিউট্রিশন বলেন, খেজুর রস যেমন স্বাদে ভরা, তেমনি পুষ্টিকর। তবে ঠান্ডার দিনে শিশু ও বয়স্কদের রস না খাওয়ায় ভাল। এতে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়মানুযায়ী তথ্য মন্ত্রনালয় বরাবর নিবন্ধনের জন্য আবেদিত অনলাইন পত্রিকা । © All rights reserved © 2019 dailybartomansomoy.com
 
Design & Developed BY Anamul Rasel